top of page
Search

যীশুই সত্য

Updated: Dec 10, 2023



এই পৃথিবীর সকল মানুষই সত্যের খোঁজ করছেন। কেননা তারা সত্যকে জানতে ও বুঝতে চায়, সত্যের প্রতি নির্ভর করতে চায়, যেন সত্যের সংগে বাস করতে পারেন। কিন্তু প্রকৃত সত্যের সন্ধান পেতে হলে যীশুর নিকট আসতে হবে কারণ সর্ব পরীক্ষায় এটি সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত সত্যই যীশু সত্য কোন বিকল্প নেই ঈশ্বরের নিকট যাওয়ার জন্য।



"কারণ একমাত্র ঈশ্বর আছেন; ঈশ্বরের ও মনুষ্যদের মধ্যে একমাত্র মধ্যস্থও আছেন" #১তীম ২:৫



" সত্য " শব্দটির দু রকম অর্থ বা ব্যবহার হতে পারে।



প্রথমতঃ আমরা কথা বলার ক্ষেত্রে সত্য - মিথ্যার ব্যবহার করে থাকি। এটি বিশেষণ মাত্র।আর বিশেষণ অর্থের ব্যবহার হরহামেশাই আমরা করে থাকি।



দ্বিতীয়তঃ আবার সত্য মানে এমন কিছু যা ভিত্তিস্বরুপ যার উপরে আমরা নির্ভর করি, যার কার্যকর করার ক্ষমতা রয়েছে, যাকে কোন কোন সময় ব্যক্তিবাচক হিসাবেও ব্যবহার করা হয়। যীশু হচ্ছেন সত্য। আর তিনি যে সত্য, তা এক সময় এক ভিত্তি হিসাবে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে যার উপরে আমরা বিশ্বাস রাখি, নির্ভর করি। এ সত্য আমাদের জন্ম দেয়, আমাদের পাপ দেখায়, পবিত্র করে, এবং আমাদের ঈশ্বরের লক্ষ্যের দিকে নিয়ে যায়। আমাদের সত্য কথা ও যীশু সত্য এ দুয়ের মধ্য পার্থক্য রয়েছে।



কোন কিছু থেকে বের করা সত্য সম্পর্কে এখানে বুঝানো হচ্ছে না। কেউ কেউ কোন গবেষণা করে সত্য আবিস্কার করেন। এখানে সে ধরনের আবিষ্কারের সত্য সম্পর্কে বলা হয় নি। একজন ব্যক্তি সম্পর্কে বলা হচ্ছে যিনি নিজে সত্য।

এখন প্রশ্ন সত্য কে?



একজন খ্রীষ্টান বিশ্বাসীর কাছে " সত্য কি " এমন প্রশ্ন নয়, কিন্তু সত্য কে প্রশ্ন করতে হবে। কেননা যীশু সত্য ধর্ম বা শিক্ষা সম্পর্কে বলছেন না, কিন্তু নিজে সত্য সে সম্পর্কে বলছেন।



"তাহাদিগকে সত্যে পবিত্র কর; তোমার বাক্যই সত্যস্বরূপ।" আর সেই বাক্য কে?


"আদিতে বাক্য ছিলেন, এবং বাক্য ঈশ্বরের কাছে ছিলেন, এবং বাক্য ঈশ্বর ছিলেন।" (#যোহন ১:১)

"সেই বাক্য দেহ ধারণ করলেন এবং আমাদেরই মধ্যে বসবাস করলেন। আমরা তাঁর মহিমা দেখেছি, ঠিক যেন পিতার নিকট থেকে আগত এক ও অদ্বিতীয় পুত্রের মহিমা। তিনি অনুগ্রহ ও সত্যে পূর্ণ।" (#যোহন ১:১৪) "আর সেই বাক্য মাংসে মূর্ত্তিমান হইলেন, এবং আমাদের মধ্যে প্রবাস করিলেন, আর আমরা তাঁহার মহিমা দেখিলাম, যেমন পিতা হইতে আগত একজাতের মহিমা; তিনি অনুগ্রহে ও সত্যে পূর্ণ।" (#যোহন ১৭:১৭)


এখানে বাক্য বলতে যীশুকে বুঝানো হয়েছে।


কেন যীশুই একমাত্র সত্য?



১। কারণ তিনি যে সকল কথা বলেছেন, তা নিজে থেকে নয়, কিন্তু ঈশ্বর থেকে বলেছেন-



"তুমি কি বিশ্বাস কর না যে, আমি পিতাতে আছি এবং পিতা আমাতে আছেন? আমি তোমাদিগকে যে সকল কথা বলি, তাহা আপনা হইতে বলি না; কিন্তু পিতা আমাতে থাকিয়া আপনার কার্য্য সকল সাধন করেন।" (#যোহন ১৪:১০)



২। যীশুকে বিশ্বাস্ত বলা হয়েছে - #প্রকা ৩:১৪ আর লায়দিকেয়াস্থ মণ্ডলীর দূতকে লিখ;— "যিনি আমেন, যিনি বিশ্বাস্য ও সত্যময় সাক্ষী, যিনি ঈশ্বরের সৃষ্টির আদি, তিনি এই কথা কহেন;"



৩। যীশু যে সকল দাবী করেছেন তা তিনি পূর্ণ করেছেন - "মনে করিও না যে, আমি ব্যবস্থা কি ভাববাদিগ্রন্থ লোপ করিতে আসিয়াছি; আমি লোপ করিতে আসি নাই, কিন্তু পূর্ণ করিতে আসিয়াছি।" (#মথি ৫:১৭)



৪। যীশুই ঈশ্বর মানব - "আর আমরা জানি যে, ঈশ্বরের পুত্র আসিয়াছেন, এবং আমাদিগকে এমন বুদ্ধি দিয়াছেন, যাহাতে আমরা সেই সত্যময়কে জানি; এবং আমরা সেই সত্যময়ে, তাঁহার পুত্র যীশু খ্রীষ্টে আছি; তিনিই সত্যময় ঈশ্বর এবং অনন্ত জীবন।" (#১যোহন ৫:২০)



যীশু সত্য বলতে যা বুঝিয়েছেন তা হলো, ঈশ্বরের সহিত পূর্ণমিলন হওয়ার জন্য তিনি ছাড়া বিকল্প নেই, এই অর্থে তিনি সত্য ও নির্ভরযোগ্য

কোন ব্যক্তি যদি ঈশ্বরকে পাওয়ার জন্য যীশুকে বাদ দিয়ে বিকল্প উপায়ে প্রাণপণ করেন, তিনি দিনশেষে ঈশ্বরের সহিত মিলিত হতে পারবেন না, প্রতারিত হবেন কারণ তিনি যার উপর বিশ্বাসে নির্ভর করেছেন ঈশ্বরের কাছে যাওয়ার জন্য সেই নির্ভরতা মিথ্যা বলে প্রতিয়মান হয়েছে। সেই ব্যক্তিকে ঈশ্বরের সাথে মিলিত করতে পারেন নি কেননা সে প্রতারিত হয়েছেন। এই অর্থে যীশুই সত্য, কারণ তিনি ঈশ্বর হইতে এসেছেন কেবল তিনিই আপনাকে ঈশ্বরের নিকট নিয়ে যেতে পারেন।



"অতএব এখন অবধি আমরা আর কাহাকেও মাংস অনুসারে জানি না; যদিও খ্রীষ্টকে মাংস অনুসারে জানিয়া থাকি, তথাপি এখন আর জানি না।ফলতঃ কেহ যদি খ্রীষ্টে থাকে, তবে নূতন সৃষ্টি হইল; পুরাতন বিষয়গুলি অতীত হইয়াছে, দেখ, সেগুলি নূতন হইয়া উঠিয়াছে।আর, সকলই ঈশ্বর হইতে হইয়াছে; তিনি খ্রীষ্ট দ্বারা আপনার সহিত আমাদের সম্মিলন করিয়াছেন, এবং সম্মিলনের পরিচর্য্যা-পদ আমাদিগকে দিয়াছেন;বস্তুতঃ ঈশ্বর খ্রীষ্টে আপনার সহিত জগতের সম্মিলন করাইয়া দিতে ছিলেন, তাহাদের অপরাধ সকল তাহাদের বলিয়া গণনা করিলেন না; এবং সেই সম্মিলনের বার্ত্তা আমাদিগকে সমর্পণ করিয়াছেন। অতএব খ্রীষ্টের পক্ষেই আমরা রাজদূতের কর্ম্ম করিতেছি; ঈশ্বর যেন আমাদের দ্বারা নিবেদন করিতেছেন, আমরা খ্রীষ্টের পক্ষে এই বিনতি করিতেছি, তোমরা ঈশ্বরের সহিত সম্মিলিত হও। যিনি পাপ জানেন নাই, তাঁহাকে তিনি আমাদের পক্ষে পাপস্বরূপ করিলেন, যেন আমরা তাঁহাতে ঈশ্বরের ধার্ম্মিকতা-স্বরূপ হই।" (#২করি ৫:১৬-২১)



আপনাকে ঈশ্বরের নিকট নিতে স্বর্গ হতে কেবল যীশুই এসেছেন। "কারণ যাহা হারাইয়া গিয়াছিল, তাহার অন্বেষণ ও পরিত্রাণ করিতে মনুষ্যপুত্র আসিয়াছেন।" (#লুক ১৯:১০)



আপনি সত্যিই পাপের কারণে পবিত্র ঈশ্বর হইতে হারিয়ে গিয়েছেন। কিন্তু আপনি অন্ধভাবে ঈশ্বরকে খুঁজছেন, ঈশ্বর নিজেও আপনাকে খুঁজছেন, আর সেই সত্য যীশু যিনি আপনাকে পরিত্রাণ করে ঈশ্বরের কাছে নিয়ে যাবেন। সুতরাং আর কতকাল আমরা যীশু সত্যকে আমাদের পাপময় জীবন থেকে দূরে রাখব?



"দেখ, আমি দ্বারে দাঁড়াইয়া আছি, ও আঘাত করিতেছি; কেহ যদি আমার রব শুনে ও দ্বার খুলিয়া দেয়, তবে আমি তাহার কাছে প্রবেশ করিব, ও তাহার সহিত ভোজন করিব, এবং সেও আমার সহিত ভোজন করিবে।" (#প্রকাশিত বাক্য ৩:২০)



214 views0 comments

Comments


bottom of page