top of page
Search

কেন খ্রীষ্টানদের কোনভাবেই ধ্বংস করা যাবে না! তাঁর কারণগুলো কি?


প্রিয়পাঠক, দানিয়েল পুস্তকের ঘটনা হচ্ছে “ইব্রীয়দের মধ্যে সেই তিনজন যুবক ব্যক্তি হল পরজাতীয়দের মধ্যে ইস্রায়েলের এক চিত্র। কষ্টদায়ক অগ্নিকুন্ডে নিক্ষেপ ও তাড়নার মধ্য দিয়ে নিয়ে গিয়ে তাদের ধ্বংস করে দেওয়ার বাসনা ছিল, কিন্তু অলৌকিকভাবে তারা সুরক্ষিত হয়েছিল, এমন কি তা অগ্নিদায়ক অগ্নিকুন্ডে সেই জাতিদের প্রতিযোগীতায় এবং তাড়নার [ইহুদী-বিদ্বেষ] মধ্যে পড়েও তারা সুরক্ষিত ছিল, কেননা তারা ছিল ঈশ্বরের নিয়মের সন্তান আর পরিশেষে তারা অলৌকিকভাবে মুক্তিলাভ করেছিল এবং সেই জাতির মধ্য থেকে উন্নত হয়েছিল।”


পরজাতিদের মধ্যে প্রায় প্রত্যেকেই কোন দিক দিয়ে যিহুদীদের প্রতি তাড়না করেছেন। মিশর, বাবিল, গ্রীস, রোম, স্পেন, ফ্রান্স, রাশিয়া, এবং জার্মানি – এদের সকলেই যিহুদীদের প্রতি তাড়না করেছে, ও তাদের ধ্বংস করে দিতে চেয়েছিল। কিন্তু তারা সকলেই ব্যর্থ হয়েছে কেননা ইস্রায়েল হল ঈশ্বরের অনন্তকালীন জাতি! এখন ইরান মনে করে যে ইহা ইস্রায়েলকে ধ্বংস করে ফেলবে! তারা এই কথা প্রায় সময়েই বলেছে। কিন্তু আমি তাদের বলেছি,


“তাদের থেকেও শক্তিশালী জাতিরা সেই ইহুদীদের ধ্বংস করে দিতে চেয়েছে। তাদের সকলেই ব্যর্থ হয়েছে - আর সেইভাবে তোমরাও ব্যর্থ হবে!” অগ্নিতে পূর্ণ পীড়া ও কষ্টের মধ্যে ঈশ্বর সবসময়েই ইস্রায়েলের সঙ্গে ছিলেন, আর এখনও ঈশ্বর তাদের হতাশ করবেন না! আপনি একবার দেখুন, ঈশ্বর অব্রাহামের সঙ্গে এমন এক নিয়ম করেছেন যা কোন সময়েই ভগ্ন হবে না। ঈশ্বর তাদের বংশকে বলেই দিয়েছেন যে কমান দেশ চিরকালের জন্যই যীহুদীদের দেওয়া হয়েছে!


“সেই দিন সদাপ্রভু অব্রামের সহিত নিয়ম স্থির করিয়া, কহিলেন, আমি মিশরের নদী অবধি মহানদী ফরাৎনদী পর্যন্ত, এই দেশ, তোমার বংশকে দিলাম” (আদিপুস্তক ১৫:১৮)।


“আর তুমি, এই যে কনাম দেশে প্রবেশ করিতেছ, ইহার সমুদয় আমি তোমাকে, ও তোমার ভাবী বংশকে, চিরস্থায়ী অধিকারার্থে দিব; আর আমি তাহাদের ঈশ্বর হইব” (আদিপুস্তক ১৭:৮)।


যুগ যুগ ধরে, এই যিহুদীরা তাড়নার মধ্য দিয়ে গিয়েছেন – তা প্রায় সময়ে ভ্রান্ত খ্রীষ্টীয়ানদের দ্বারা, কেননা প্রকৃত কোন খ্রীষ্টীয়ানই কোনমতেই ঈশ্বরের লোকদের ক্ষতি করার চেষ্টা করবে না! কিন্তু যেশুয়া (যীশু) সবসময়েই সেই অগ্নিকুন্ডের চতুর্থ ব্যক্তি হয়ে উঠেছেন, যিনি যিহুদী লোকেদের দ্বারা কষ্ট সহ্য করেছেন - আর পরিশেষে তাদের পরজাতীয় অবিশ্বাসীদের হাত থেকে বিজয় দিয়েছেন! পরিশেষে, প্রেরিত পৌলের ভাববাণী আক্ষরিক ভাবেই সত্য হয়ে উঠবে। কেননা তিনি বলেছেন,


“আর এই প্রকারে সমস্ত ইস্রায়েল পরিত্রান পাইবে: যেমন লিখিত আছে, সিয়ান হইতে মুক্তিদাতা আসিবেন, আর যাকোব হইতে ভক্তিহীনতা দূর করিবেন” (রোমীয় ১১:১৬)।


শেষ করার সময়ে, আমাদের তিনজন ইব্রীয় বন্ধুদের সঙ্গে অগ্নিকুন্ডে সেই চতুর্থ ব্যক্তির বিষয়ে একটু চিন্তা করি। নবুখদ্নিৎসর বলেছিলেন তিনি ছিলেন “দেবপুত্রের” (স্বর্গদূতের) ন্যায় (দানিয়েল ৩:২৮)। দেবপুত্র বা “স্বর্গদূত” যার সাধারন অর্থ হল “বার্তাবাহক”। পুরাতন নিয়মে “সদাপ্রভুর বার্তাবাহক” প্রায় সময়ে এমন এক প্রকাশভঙ্গী যা খ্রীষ্টের বা যীশুর পূর্ব অবতারত্ব। দৃষ্টান্তস্বরূপ, “সদাপ্রভুর স্বর্গদূত বা বার্তাবাহক” মনোহ নামে এক ব্যক্তির কাছে প্রকাশিত হলেন, যিনি হলেন শিমশোনের পিতা। বাইবেল বলে,


“তখন মনোহ জানিতে পারিলেন যে ইহা সদাপ্রভুর দূত। পরে মনোহ আপন স্ত্রীকে কহিলেন, আমরা অবশ্যই মারা পড়িব, কারন আমরা ঈশ্বরকে দেখিয়াছি” (বিচারকর্ত্তৃগনের পুস্তক ১৩:২১,২২)।


সুতরাং, সদাপ্রভুর সেই দূত ছিলেন ঈশ্বর, যীশু হলেন ত্রীত্ব ঈশ্বরের দ্বিতীয় সত্বা, যিনি পুরাতন নিয়মে প্রকাশমান ছিলেন মেরির গর্ভে তাঁর অবতাররূপ গ্রহনের আগে। সেই সঙ্গে, দানিয়েল ৩:২৫ পদে, সেই রাজা জ্বলন্ত অগ্নিকুন্ডকে দেখে বলেছিলেন, “আর চতুর্থ ব্যক্তির মূর্ত্তি দেবপুত্রের ন্যায়”। ডাঃ জে. ভারনন ম্যাকগী বলেছেন, “আমি বিশ্বাস করি যে সেই চতুর্থ ব্যক্তি ছিলেন ঈশ্বরের পুত্র, খ্রীষ্টের পূর্ব অবতারত্বের রূপ” (J. Vernon McGee, Th.D., Thru the Bible, Thomas Nelson Publishers, 1982, volume III, p,. 547; note on Daniel 3:25)।


মনোনীত লোকেদের জন্য দুঃখভোগ এবং প্রত্যাখান ভাগ করার জন্য এই পৃথিবীতে নেমে আসার প্রতি যীশুর চরিত্র কতোটাই না দৃঢ়তাসূচক ছিল – আর পরিশেষে তাদের তিনি মুক্তও করলেন! তিনি স্বর্গ থেকে নেমে এলেন, কুমারী মরিয়মের গর্ভে। সর্ব প্রথম খ্রীষ্টমাসের সময়ে তিনি যখন “নেমে এলেন” তখন তিনি “রাজাদের রাজা ও প্রভুদের প্রভু হিসাবে” নেমে আসেন নি। তাঁর দ্বিতীয় আগমনে তিনি – রাজাদের রাজা ও প্রভুদের প্রভু হিসাবেই ভবিষ্যতে ফিরে আসবেন। কিন্তু তিনি কুমারী মরিয়মের গর্ভে নেমে এলেন - ঠিক সেইভাবেই যেভাবে তিনি তিন বিক্রমী বীর যিহুদী ইব্রীয়দের কাছে জ্বলন্ত অগ্নির মধ্যে নেমে এসেছিলেন!


যীশু স্বর্গ থেকে নেমে এসেছেন এই জগতে দুঃখভোগ করেন, যেন তাঁর লোকেদের নরকের জ্বলন্ত অগ্নির হাত থেকে উদ্ধার করেন! “সেই অগ্নি যা কোনমতেই নিবারিত হবে না” যার মধ্যে আমাদের সকলকেই অনন্তকাল ব্যয় করতে হত। কিন্তু আমাদের পাপের দন্ড মিটিয়ে দেওয়ার প্রতি যীশু নেমে এলেন যেন ক্রুশের উপরে মৃত্যুদন্ড ও দুঃখভোগ করেন। ঈশ্বর আমাদের সমস্ত পাপকে “গাছের উপরে তার নিজের শরীরে” বহন করলেন - সেই ক্রুশের উপরে (১ পিতর ২:২৪)। আর তাই, তাঁর লোকেদের জন্য যীশু সমস্ত পাপের জন্য বলিকৃত হইলেন।


তিনি মৃত ছিলেন, সমাধি মন্দিরের অভ্যন্তরে, তিন দিন তিনি মৃত ছিলেন। কিন্তু, ঈশ্বরের রবিবার অতি প্রত্যুষে, যীশু শারীরিকভাবে পুনরুথ্থিত হলেন – তার মধ্যে ছিল অস্থি ও মাংস – মৃত থেকে জীবিত হলেন। তিনি স্বর্গে উন্নত হলেন, আর এখন তিনি আপনার জন্য প্রার্থনা করছেন, এবং পিতা ঈশ্বরের দক্ষিন পার্শ্বে বসে রয়েছেন।


আপনি যখন যীশুকে আপনার হৃদয়ে নির্ভর করেন, তখন তিনি আপনার পাপ ক্ষমা করেন আর সেগুলোকে তিনি তাঁর রক্ত দ্বারা পরিষ্কার করেন। আপনি যখন যীশুকে আপনার হৃদয়ে নির্ভর করেন, তখন তিনি আপনাকে পাপ থেকে উদ্ধার করেন, এবং তিনি আপনাকে হারিয়ে যাওয়া আশাহীন জীবন থেকে উদ্ধার করেন – ঠিক যেমনভাবে তিনি সেই তিনজন ইব্রীয়দের জ্বলন্ত অগ্নির মধ্য থেকে মুক্ত করেছিলেন! আমেন!


যীশুর জন্য নির্যাতিত হওয়ার সৌভাগ্য কতজনের হয়!

121 views0 comments

Comments


bottom of page